গাইডলাইন মেনে ক্রিকেটারদের অনুশীলনের ব্যবস্থা করবে বিসিবি

0
145

এক সপ্তাহ পর ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলন করতে পারবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছে ক্রিকেট বোর্ড। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী নিজামাউদ্দিন চৌধুরী। তবে, শিগগিরি হচ্ছে না বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অনুশীলন। করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হলে, তবেই পরবর্তী সিরিজ সামনে রেখে অনুশীলনে নামবে টাইগাররা। সুজন জানান আইসিসি’র গাইডলাইন মেনে ব্যক্তি কিংবা দলীয় অনুশীলনের ব্যবস্থা করবে বিসিবি।

করোনা গিলে খাচ্ছে বিশ্বের ক্রীড়াঙ্গন। সেই ধারায় দেশের ক্রিকেটও। ভাইরাসটির সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গৃহবন্দি ক্রিকেটাররা। অলস সময় কাটাতে ভিন্ন পথ বেছে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই। কিন্তু, আর কতো দিন? দীর্ঘ লকডাউনে ঘরে বসে একঘেয়েমির চেয়ে অনুশীলনে ফেরাই ভাল। তাই তো বাংলাদেশ জাতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম ব্যক্তিগত অনুশীলনের জন্য আবেদন করেছিলেন ক্রিকেট বোর্ডে। কিন্তু, ম্যাচ জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দ্রুত উইকেট খোয়ানোর পর আসকিং রান রেট যেমন হু হু করে বাড়ে ঠিক তেমনি দেশে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। স্বাভাাবিকভাবেই মুশফিকের আবেদনে সাড়া দেয়নি বোর্ড। তবে, একাধিক ক্রিকেটারের আগ্রহের ব্যাপারটি মাথায় রেখে ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলনের জন্য মিরপুর স্টেডিয়াম এক সপ্তাহের মধ্যে প্রস্তুত করার পরিকল্পনা বিসিবি’র।
করোনা বিশ্ব সার্বিক পরিস্থিতিতে ব্যাপাকে প্রভাব ফেলেছে। সেই ধারায় আইসিসি’র নীতিমালাতেও এসেছে পরিবর্তন। আইসিসি’র গাইডলাইন অনুযায়ী কোন দেশ অনুশীলনে নামতে চাইলে প্রাথমিক অবস্থায় ১ জন পরবর্তী ধাপে ৩ জন এবং পরিস্থিতি অনুকুলে থাকলে ১০ জনের পর দলীয় অনুশীলনে ফিরতে পারবে। যেমন ভাবে অনুশীলন করছে ইংল্যান্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অন্য দেশগুলোর ক্রিকেটীয় কার্যক্রম গভীরভাবে পর্যাবেক্ষণ করছে বিসিবি। কিন্তু, দেশে করোনার আগ্রসন জেকে বসায় এখনই জাতীয় দলকে অনুশীলনের ব্যাপারে ভাবছে না বোর্ড। তবে, এগোচ্ছে পরিকল্পনা।

💬

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন